টপ নিউজ টেনিস নির্বাচিত

ইতিহাস গড়ে শিরোপা জিতলেন রাদুকানু

৪৪ বছর পর দ্বিতীয় ব্রিটিশ নারী হিসেবে কোনো গ্রান্ড স্ল্যাম জয়ের কৃতিত্ব দেখালেন রাদুকানু। মাত্র ১৮ বছর বয়সেই ইউএস ওপেনে চমক দেখান এমা রাদুকানু। কানাডার ১৯ বছর বয়সী লায়লা ফার্নান্দেজকে সরাসরি সেটে হারিয়ে ইউএস ওপেনের শিরোপা জিতেন তিনি। প্রথমবার অংশ নিয়েই শিরোপা জিতে ইতিহাস গড়েছেন এমা রাদুকানু।

ব্রিটিশদের ৪৪ বছরের আক্ষেপ ঘোচালেন এমা রাদুকানু। ১৯৭৭ সালে ভার্জিনিয়া ওয়েডের পর ব্রিটিশ খেলোয়াড় হিসেবে কোনো গ্র্যান্ডস্ল্যাম ওপেন জয় করলেন এই অষ্টাদশী। কানাডার আরেক কিশোরী লায়লা ফার্নান্ডেজকে হারিয়ে রেকর্ড গড়েন এমা, টেনিস বিশ্বে জন্ম হলো নতুন তারকারও।

ইউএস ওপেনে নারী এককের ফাইনালে ব্রিটিশ ও কানাডিয়ান দুই কিশোরীর লড়াই দেখার অপেক্ষায় ছিলো পুরো বিশ্ব। একদিকে এমা রাদুকানু, অন্যদিকে লায়লা ফার্নান্ডেজ। ব্রিটিশ আর কানাডিয়ানের লড়াই ছিলো হাড্ডাহাড্ডি। যেনো কেহ কারে নাহি জিনে সমানে সমান। খেলতে খেলতে রক্তাক্ত হলেন। প্লাস্টার লাগিয়ে আবার খেললেন। ব্যাকহ্যান্ড, ফোরহ্যান্ড, ক্রস কোর্ট, বেস লাইন সার্ভে, এমা রাদুকানু বিপর্যস্ত করলেন প্রতিপক্ষ লায়লা ফার্নান্ডেজকে। খেললেন নিজের সেরাটাই। শেষ পর্যন্ত বাজিমাত করলেন ব্রিটিশ তরুণী। গৌরবগাথা রচনা করে শিরোপা জিতলেন ৬-৪ ও ৬-৩ গেমে।

প্রথম সেটে ব্রেক করেও সফল হননি ফার্নান্ডেজ। দ্বিতীয় সেটেও দারুণ লড়াই করলেন। কিন্তু সকলি বিফলে যায়, রাদুকানুর দৃঢ়তায়। ইউএস ওপেনে শেষবার দুই টিনএজারের মধ্যে নারী এককের ফাইনাল হয়েছিল ১৯৯৯ সালে। সেবার সেরেনা উইলিয়ামস হারিয়েছিলেন মার্টিনা হিঙ্গিসকে। ১৯৬৮ সালে ভার্জিনিয়া ওয়েডের পর দ্বিতীয় ব্রিটিশ হিসেবে ইউএস ওপেন চ্যাম্পিয়ন হলেন রাদুকানু। এই জয়ে এমা রাদুকানুর র‌্যাংকিংয়েও উন্নতি হবে। শীর্ষ তিরিশে তার অবস্থান হওয়ার কথা এবার।